সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

English Version

বিরল এক ক্যানসারে ভুগছিলেন অরুণ জেটলি

No icon তারকা স্বাস্থ্যকথা

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ২৫ আগস্ট’ ১৯: দীর্ঘ রোগভোগের পর শনিবার দুপুরে নয়াদিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস (AIIMS)-এ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন ভারতের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। শুধু কিডনির সমস্যা নয়, বিগত দু-বছর ধরে বিরল এক ধরনের ক্যানসারে ভুগছিলেন অরুণ জেটলি। মেডিক্যালের পরিভাষায় যে ক্যানসারের নাম-সফট টিস্যু সারকোমা। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে এই বিরল ক্যানসারের চিকিত্‍‌সা করাতেই আমেরিকায় গিয়েছিলেন তিনি।

২০১৮ সালে তাঁর কিডনি প্রতিস্থাপন করা হলেও, তিনি ভুগছিলেন আরও কয়েক বছর আগে থেকেই। ডায়াবেটিস, হাই ব্লাডপ্রেসার-সহ একাধিক শারীরিক রোগভোগের কারণে, ওজন কমাতে ডাক্তারদের পরামর্শে 'বেরিয়েট্রিক সার্জারি' করাতে হয়েছিল অরুণ জেটলিকে। ডায়াবেটিসের কারণেই ওজন বাড়ছিল জেটলির। কিন্তু, এসবের মধ্যে সফট টিস্যু সারকোমা ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে পড়েন অরুণ জেটলি।

কী এই সারকোমা? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিরলতম গোষ্ঠীর এই ক্যানসার আক্রমণ করে শরীরের বিভিন্ন টিস্যুকে। পেশি হতে পারে, রক্তনালি হতে পারে, নার্ভ-টেন্ডন এমনকী শরীরের ফ্যাট বা চর্বিও এর শিকার হতে পারে। শরীরের বিভিন্ন গাঁটেও আক্রমণ শাণাতে পারে এই বিরল ক্যানসার। ফলে, শরীরের বিভিন্ন অংশে এই ক্যানসার হতে পারে।

সারকোমার আবার বিভিন্ন প্রকারভেদ রয়েছে। বিশেষজ্ঞরা আরও বলছেন, সফট টিস্যুতে সারকোমা হলেও, সফট টিস্যুতে বেড়ে ওঠা সব টিউমারই কিন্তু ক্যানসার নয়। এই সারকোমা শণাক্ত করাও খুব কঠিন বলে তাঁরা মনে করেন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই অন্য গ্রোথ বলে ডাক্তাররা ভুল করেন।

চিকিৎসকদের মতে, শরীরের কোথাও অস্বাভাবিক গ্রোথ দেখলে, সেটি যন্ত্রণাহীন হলেও ফেলে না-রেখে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া উচিত।

সর্বাধিক পঠিত খবর

আঁচিল দূর করবেন যেভাবে

সন্তান উৎপাদনের ক্ষমতা কমে যেসব কাজে


জেনে নিন হাঁটার ৫ উপকারিতা

মুখে ঘা, হতে পারে ক্যান্সারের লক্ষণ