মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮

English Version

মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়নে মনোবিজ্ঞানীদের ভূমিকা অপরিসীম: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

No icon সারা দেশের খবর

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বাংলাদেশে মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়নে চিকিৎসা-মনোবিজ্ঞানী ও সাইকিয়াট্রিস্টসহ সংশ্লিষ্টদের ভূমিকা অপরিসীম। গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সিনেট ভবনে ষষ্ঠ এশিয়ান কগনেটিভ বিহেভিয়ার থেরাপি (সিবিটি) কনফারেন্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

‘মেন্টাল হেলথ গ্যাপ ইন এশিয়ান কান্ট্রিজ : স্কোপ অব সিবিটি’ শীর্ষক প্রতিপাদ্য নিয়ে দুই দিনব্যাপী এই সম্মেলনে বাংলাদেশসহ ১৩টি দেশের কিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট, সাইকিয়াট্রিস্টসহ বিভিন্ন পেশাজীবী অংশ নিয়েছেন।

ঢাবি ভিসি অধ্যাপক ড. মো: আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ঢাবি প্রো-ভিসি (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ এবং জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো: ইমদাদুল হক, বাংলাদেশ কিনিক্যাল সাইকোলজি সোসাইটির সভাপতি ও কনফারেন্সের চেয়ারপারসন ড. মোহাম্মদ মাহমুদুর রহমান প্রমুখ।

কনফারেন্সে অংশ নিয়েছেন যুক্তরাজ্যের কিনিক্যাল নিউরো সাইকোলজিস্ট ডেভিড এ কুইন, কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়ের কিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগের অধ্যাপক কিথ ডবসন, দক্ষিণ কোরিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ইয়াং হেউ কুন, অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তিয়ান পো ওয়েই, এশিয়ান সিবিটি অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ইয়ুং-হাই কুন, কানাডা প্রবাসী চিকিৎসা মনোবিজ্ঞানী সায়েদা নাফিসা, ঢাবি চিকিৎসা মনোবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মদ কামরুজ্জামান মজুমদার প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, জনবহুল বাংলাদেশে প্রয়োজনের তুলনায় সংশ্লিষ্ট পেশাজীবীদের সংখ্যা বড়ই অপ্রতুল। অটিজম প্রতিরোধসহ এই সঙ্কট দূর করতে সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন তারা। কনফারেন্সের সার্বিক আয়োজনে ছিল ঢাবি কিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগ, বাংলাদেশ কিনিক্যাল সাইকোলজি সোসাইটি, নাসিরুল্লাহ সাইকোথেরাপি ইউনিট, ঢাবি এবং এশিয়ান কগনেটিভ বিহেভিয়ার থেরাপি অ্যাসোসিয়েশন। সিবিটি, সাইকোলজিক্যাল ট্রমা, মানসিক চাপ মোকাবেলা, বিষণ্ণতা, উদ্বিগ্নতাসহ বিভিন্ন মানসিক রোগের আচরণগত চিকিৎসা ও মনের প্রশান্তি আনয়নমূলক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে নজর দেয়া এবং নিয়ন্ত্রণের কৌশল নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ হয়।

কনফারেন্সে দেশ-বিদেশের প্রায় ৯০টি গবেষণা ফলাফল উপস্থাপন করা হবে। উঠে আসবে গুরুত্বপূর্ণ অজানা তথ্য যা পরবর্তীতে বাংলাদেশের মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা ও বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। সেই সাথে বিভিন্ন দেশের মানসিক স্বাস্থ্যসম্পর্কিত তুলনামূলক চিত্র উঠে আসবে।

 

সর্বাধিক পঠিত খবর


কিডনী ড্যামেজের লক্ষণ সমূহ

ডিনার দেরিতে করা মানেই ক্যান্সার!



বুকের ব্যথার কারণ সমূহ

জন্ডিসের কারণ ও প্রতিকার


পেটের চর্বি থেকে মুক্তির উপায়