রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯

English Version

স্ট্র বা প্লাস্টিকের পাইপ ব্যবহার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর

No icon আমার ডাক্তার

স্বাস্থ্য ডেস্ক ১৭ জুলাই’১৯: জুস, কোল্ড ড্রিঙ্ক, কোল্ড কফি, মিল্ক শেক, লাচ্চি বা এই জাতীয় খাবার খেতে আমরা অনেকেই স্ট্র ব্যবহার করি। এছাড়া ইদানিং ডাব খেতেও স্ট্র ব্যবহার হচ্ছে অধিক হারে। বিশেষ করে বাচ্চারা এ জাতীয় খাবার খেতে বেশি মাত্রায় স্ট্র ব্যবহার করে। রেস্তোরাঁয় এসব খাবার পরিবেশনের সময় সঙ্গে স্ট্র দেবেই। অনেকে বাসাবাড়িতেও স্ট্র ব্যবহার করেন। কিন্তু জেনেছেন কি এই স্ট্র বা প্লাস্টিকের পাইপ ব্যবহার স্বাস্থ্যের জন্য কতোটা ক্ষতিকর?

স্ট্র স্বাস্থ্যের জন্য যেমন ক্ষতিকর, তেমনি পরিবেশের জন্যও ক্ষতিকর। প্লাস্টিকের এ ধরনের স্ট্রতে নানা রকম কেমিক্যাল থাকে, যা শরীরে নানা রকম রোগব্যাধি সৃষ্টিতে সাহায্য করে।

আসুন এবার এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেই-

গ্যাসট্রিক ও হজমের সমস্যা:

স্ট্র দিয়ে জুস, কোল্ড ড্রিঙ্ক, মিল্ক শেক ইত্যাদি খাওয়ার সময় পেটে অতিরিক্ত হাওয়াও চলে যায়। এর ফলে গ্যাসট্রিকের সমস্যা থাকলে তা আরও বেড়ে যেতে পারে। দেখা দিতে পারে হজমের নানা সমস্যা।

বলিরেখা সৃষ্টি করে:

স্ট্র দিয়ে তরল কিছু পান করার সময় মুখের পেশীতে অতিরিক্ত চাপ পড়ে। নিয়মিত স্ট্র ব্যবহার করলে মুখে দ্রুত বলিরেখার সৃষ্টি হয়।

দাঁতের বা মুখের ক্ষতি করে:

পাত্রে চুমুক দিয়ে পানি জাতীয় খাবার খেলে দাঁত আর মুখের মধ্যে জমা ব্যাকটেরিয়া ধুয়ে সাফ হয়ে যায়। স্ট্র ব্যবহার করলে তা হয় না। উল্টো দাঁতের বা মুখের একটা নির্দিষ্ট অংশে অতিরিক্ত চিনি জমে ক্ষতির আশঙ্কা বেড়ে যায়।

স্থূলতা তৈরি করে:

বেশির ভাগ স্ট্রর ভেতর পেট্রোলিয়ামভিত্তিক প্লাস্টিক পলিপ্রপিলিন ও বিশফেনল এ (বিপিএ) থাকে। যা উষ্ণ কোনো তরলের সঙ্গে সহজে মিশে যায়। এ থেকে মুটিয়ে যাওয়া, এমনকি ক্যান্সারের মতো সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

প্লাস্টিকের কণা শরীরে ঢুকে যেতে পারে:

প্লাস্টিকের ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্কে আমরা এখন প্রায় সকলেই অবগত। আর স্ট্র প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি হয়। তাই স্ট্র দিয়ে ঠান্ডা বা গরম পানীয় খাওয়ার সময় প্লাস্টিকের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা মিশে যেতে পারে এসব খাবারের সঙ্গে। ক্ষতিকর প্লাস্টিকের কণা শরীরে ঢুকে রক্তের সঙ্গে মিশে গেলে নানা ক্ষতিকর রোগের সৃষ্টি করতে পারে।

সর্বাধিক পঠিত খবর







৭ ঘণ্টার কম ঘুম আর নয়!

স্ট্রোকের প্রাথমিক তিন লক্ষণ


আঁচিল দূর করবেন যেভাবে