সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

English Version

মুখে ঘা, হতে পারে ক্যান্সারের লক্ষণ

No icon আমার ডাক্তার

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ২২ আগস্ট’ ১৯: শরীরের নানা কারণ ও নানা সমস্যায় মুখে ঘা হতে পারে। তবে মুখে ঘা হলে সাধারণত আমরা আমলে নেই না। কিন্তু এই ঘা থেকেই হতে পারে মরণঘাতী ক্যান্সার। তাই মুখে ঘা হলে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যাওয়া জরুরি।

চিকিৎসকরা বলেন, অল্প ব্যথা ও জ্বালা হলে সচেতন হতে হবে কারণ বেড়ে গেলে নিয়ন্ত্রণ করাও কঠিন। সাধারণত এমন হলে প্রাথমিক অবস্থায় কেউ সমস্যা বুঝতে পারে না। খুব ব্যথা-জ্বালা থাকলে তবেই চিকিৎসকের কাছে যান। চিকিৎসকরা বলেন, মুখে দুই ধরনের ঘা হয়। লাল রঙের ঘা ও সাদা রঙের ঘা। লালচে ঘা হলে খুব বেশি জ্বালা করে। সাদাটে ঘায়ে স্বাভাবিক পর্যায়ে জ্বালা কম। তবে দুই ধরনের ঘা থেকেই ক্যান্সারের সম্ভাবনা থাকে। তাই এমন লক্ষণ দেখা গেলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। চলুন জেনে নেয়া যাক যেভাবে হতে পারে মুখের ঘা-

দাঁত থেকে হতে পারে

অনেকের সময়ে দাঁতে সংক্রমণ ছড়িয়ে গিয়ে মাড়িতে ঘা হয়। বিশেষ করে দাঁতের গর্ত বা ক্যাভিটি থাকলে তা থেকে এমন হতে পারে। আবার ভাঙা দাঁতের অংশের সাথে মুখের যে কোনো ভাগে ঘষা লেগে ক্ষত তৈরি হতে পারে। দীর্ঘ সময় ধরে এমন হতে তা থেকে মুখে আলসার হয়। মুখের মধ্যে ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া, ফাঙ্গাস ইনফেকশন থেকেও এমন ঘা হতে পারে।

কেটে গেলে

দাঁতের কামড়ে গাল অথবা জিহ্ববা কেটে গেলেও এমন সমস্যা দেখা দিতে পারে। কারো কারো আবার বারবার মুখ কামড় লাগার অভ্যাস থাকে। যা দীর্ঘদিন হতে হতে তা থেকে আলসার হতে থাকে।

গরমে খেতে গিয়ে

মুখের ভিতর পুড়ে সেই স্থানে বারবার জিহ্ববা বা দাঁতের কামড় পড়লে তা থেকে ঘা হতে পারে। কাজেই এমন হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিত।

কিছু খারাপ অভ্যাস

তামাক জাতীয় দ্রব্য খুবই ক্ষতিকর যা মুখের ঘা থেকে শুরু করে আরো অনেক ধরনের সমস্যা করে। বিশেষ করে সুপারি মুখের ক্ষত তৈরি করে। সুপারি ও তামাক জাতীয় দ্রব্য মুখের ভিতরের ত্বকের নানা পরিবর্তন করে।

দাঁতের পাশে এই সুপারি জমিয়ে রাখলে তা থেকে অ্যালকালয়েড নামক উপাদান নিঃসৃত হয়। যা মুখের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। নরম চামড়া ক্ষয়ে বা পুড়ে যেতে থাকে। আর এটি ক্যান্সারের একটি কারণও হতে পারে।দানি করা হয়।

সর্বাধিক পঠিত খবর

আঁচিল দূর করবেন যেভাবে

সন্তান উৎপাদনের ক্ষমতা কমে যেসব কাজে


জেনে নিন হাঁটার ৫ উপকারিতা

মুখে ঘা, হতে পারে ক্যান্সারের লক্ষণ