বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯

English Version

জলপাই হার্ট অ্যাটাক ও ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়

No icon আমার ডাক্তার

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ১৬ নভেম্বর ২০১৯: নানাগুণে সমৃদ্ধ জলপাই একটি শীতকালীন ফল। ভিটামিন সি এবং ই-এর ভালো উৎস এই ফলটি। গবেষণায় দেখা গেছে, এই ফল খনিজ উপাদান, ভিটামিন, ফাইবার এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট-সমৃদ্ধ। প্রতি ১০০ গ্রাম জলপাইয়ে খাদ্যশক্তি থাকে ৭০ কিলোক্যালরি, শর্করা থাকে ৯.৭ মিলিগ্রাম, ক্যালসিয়াম থাকে ৫৯ মিলিগ্রাম এবং ১৩ মিলিগ্রাম থাকে ভিটামিন- সি। জলপাইয়ের তেলে পাওয়া যায় ভিটামিন ই, ফ্যাটি অ্যাসিড ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, যা ত্বককে করে সতেজ ও কোমল এবং চুলের গোড়া করে মজবুত। এই তেল বাহ্যিকভাবে ব্যবহার করা যায় অথবা রান্নার সাথে ব্যবহার করেও খাওয়া যায়। নিয়মিত এই তেল ব্যবহারে চুল পড়া সমস্যা দূর হয় এবং ত্বক হয় মসৃণ ও কোমল।

এছাড়া জলপাইয়ের তেল হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়। গ্যাস্ট্রিক ও আলসার হওয়ার আশঙ্কাও কমে যায়। বিপাক ক্রিয়ায় ভালো কাজ করে ফলটি। জলপাই ভিটামিন-ই এর ভালো উৎস। এটি ফ্রি র্যাডিকেল ধ্বংস করে। ফলে শরীরের ওজন থাকে নিয়ন্ত্রণে। জলপাইয়ের ভিটামিন-ই কোষের অস্বাভাবিক গঠনে বাধা দেয়। ফলে রান্নায় এই তেল ব্যবহারে ক্যান্সারের ঝুঁকি এমনিতেই কমে যায়। জলপাইয়ের মনো-স্যাচুরেটেড চর্বিতে থাকে প্রদাহবিরোধী উপাদান। হাড়ের ক্ষয়রোধ করে জলপাইয়ের তেল। নিয়মিত জলপাই খেলে (স্বাভাবিকভাবে রান্না করে অথবা অন্য কোনো উপায়ে) পিত্তরস ঠিকভাবে কাজ করে। পিত্তথলিতে পাথর হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়। জলপাই প্রাকৃতিক অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট-সমৃদ্ধ। এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি আছে, যা সর্দি, জ্বর ইত্যাদি দূর করে এবং দেহের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। জলপাই রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে।

সর্বাধিক পঠিত খবর

আলসারের লক্ষণগুলো জেনে নিন


চূড়ান্তভাবে নিষিদ্ধ হলো রেনিটিডিন



শিশু দ্রুত লম্বা হবে যেসব খাবারে