সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০

English Version

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা
৬৪দিন
:
১১ঘণ্টা
:
৩৯মিনিট
:
৫৬সেকেন্ড
No icon আমার ডাক্তার

স্বাস্থ্য ডেস্ক- ৩০ জানুয়ারি ২০২০: বর্তমানে বিশ্বব্যাপী আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনাভাইরাস। এটি এমন একটি সংক্রামক ভাইরাস- যা এর আগে কখনও মানুষের মধ্যে ছড়ায়নি। এটা অত্যন্ত সংক্রামক, তাই সর্বোচ্চ প্রস্তুতির জোর আহ্বান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার।

করোনাভাইরাস আক্রমণ করে মানুষের শ্বাসযন্ত্রে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সাধারণ মানুষের মধ্যে সতর্কতা বাড়াতে কিছু পরামর্শ দিয়েছে, যা নিম্নরূপ:-

১. সাবান ও পানি দিয়ে বারবার হাত ধুতে হবে।

২. চোখ, নাক ও মুখ বারবার স্পর্শ করা যাবে না।

৩. যত বেশি সম্ভব কণ্ঠনালী ভিজিয়ে রাখতে হবে। বেশি বেশি পানি পান করতে হবে। কণ্ঠনালী যদি শুষ্ক থাকে মাত্র ১০ মিনিটেই আক্রমন মারাত্মক হতে পারে।

৪. সর্দি-কাশি হলে নাক ও মুখ ঢেকে রাখতে হবে, টিস্যু ব্যবহারের পর দ্রুত তা ফেলে হাত ধুতে হবে।

৫. কারো জ্বর বা ঠাণ্ডা হলে তার খুব কাছে যাওয়া যাবে না।

৬. জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে, ভ্রমণ করা যাবে না।

৭. মাংস ও ডিম সম্পূর্ণ সেদ্ধ করে রান্না করতে হবে।

৮. অসুস্থ পশুপাখি খাওয়া যাবে না।

৯. কর্মস্থল ও কর্মস্থলে ব্যবহার্য জিনিস দিনে অন্তত একবার পরিষ্কার করতে হবে।

১০. বাস, ট্রেন ও যেকোনও গণপরিবহণে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

জ্বর দিয়ে এই ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হয়। পরে শুকনো কাশি দেখা দিতে পারে। প্রায় এক সপ্তাহ পরে শ্বাসকষ্ট শুরু হয়।

সর্বশেষ খবর

সর্বাধিক পঠিত খবর





চীনের পাঠানো চিকিৎসা সরঞ্জাম আসছে আজ