রবিবার, ২২ জুলাই ২০১৮

English Version

‘ভেষজ অ্যান্টিবায়োটিক’!

No icon অামার ডাক্তার

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭: ঋতু পরিবর্তন মানেই ঘরে ঘরে সর্দি, কাশি, জ্বর আর বিভিন্ন সংক্রামক রোগের আগমন৷ তবে ওষধি গাছের ব্যবহার জানা থাকলে, আগে থেকে যেমন সতর্ক হওয়া সম্ভব, তেমনি ঘরে তৈরি আন্টিবায়োটিক সেবন করে নানা অসুখ সারানোও যায়৷

‘ব্রণ' এর সমস্যা?: প্রায় সব অসুখের জন্যই কোনো-না-কোনো ওষধি গাছ পৃথিবীতে জন্মেছে, শুধু তা আমাদের খুঁজে নিতে হবে৷ এখানে তারই একটি নমুনা৷ যেমন ব্রণের সমস্যায় সাহায্য করে আপেলের তৈরি ভিনেগার ৷ ভালো করে মুখ ধোয়ার পর একটু তুলো আপেল ভিনিগারের মধ্যে ভিজিয়ে নিন৷ তারপর সেই তুলো মুখের ব্রণের ওপর কিছুক্ষণ ধরে রাখুন, দেখবেন পরদিনই ব্রণটি ছোট হয়ে যাবে৷

ডায়রিয়া বা পেট খারাপে গাজর: ৫০০ গ্রাম গাজর একটু লবণ দিয়ে এক লিটার পানিতে ১ ঘন্টা সেদ্ধ করে নিন৷ তারপর ভালো করে চটকে নিন৷ দিনে কয়েকবার এই ঘন স্যুপটি খেলে পেটের জীবাণু প্রায় নির্মূল হবে৷ ১০০ বছরের পুরোনো এই রেসেপিটি জানান জার্মানির হাইডেল ব্যার্গ শহরের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা.মোরো৷

আদা হলুদের জনপ্রিয়তা: অনেক জার্মান পরিবারে আজকাল ‘ওষধি গাছ বা ভেষজ অ্যান্টিবায়োটিক’ তৈরি করতে দেখ যায়৷ বিশেষ করে, যেসব বাড়িতে শিশু-কিশোর এবং প্রবীণ রয়েছেন৷ তবে কিছুদিন আগে পর্যন্তও জার্মানিতে আদা এবং কাঁচা হলুদ অপরিচিত মসলা ছিলো৷ বিভিন্ন গবেষণার মাধ্যমে এসবের গুণাগুণ জানার পর আজকাল সচেতন জার্মানদের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এবং পাওয়া যাচ্ছে প্রায় সর্বত্র৷

ভেষজ অ্যান্টিবায়োটিক: ১০০ গ্রাম রসুন, ৫টি অর্গ্যানিক লেবু,৭০ গ্রাম আদা,৩০ গ্রাম কাঁচা হলুদ ভালো করে ধুয়ে ছোট করে কেটে নিয়ে ১ লিটার পানি দিয়ে ব্লেন্ডারে গুড়ো করে নিন৷ এক চিমটি কালো গোল মরিচের গুড়ো মিশিয়ে চুলোয় অল্পক্ষণ গরম করার পর ২০ মিনিট ঢেকে রাখুন৷এবার তরল ছেকে কাঁচের বোতলে ঢেলে ফ্রিজে রেখে দিন৷ শীতের মাসগুলোতে ঘরে তৈরি এই ‘ভেষজ অ্যান্টিবায়োটিক’ প্রতিদিন চার চামচ করে খেলে শীতের নানা অসুখকে দূরে রাখা সম্ভব৷

মধুর অবদান: মধুর গুণের কথা আজ আর কে না জানে৷ আপনার কি ঠান্ডা লেগে গলায় আওয়াজ আসছে না? তাহলে দিনে কয়েকবার এক চা চামচ করে মধু ধীরে ধীরে খান৷ গলার ভাইরাস, সংক্রমণ এবং জীবাণু দমন করতে বিশেষভাবে সহায়তা করবে এই মধু৷

দাঁতের মাড়িতে ইনফেকশন ?: দাঁতের মাড়ির ইনফেকশন এড়াতে প্রতিদিন গোসলের আগে এক টেবিল চামচ সূর্যমূখী তেল মুখের ভেতর নিয়ে ১৫ মিনিট রাখুন৷ তারপর মুখ থেকে তেল ফেলে দিয়ে নরমাল পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন৷ তেল মুখের ভেতরের জীবাণু ধ্বংস করতে বিশেষভাবে সহযোগিতা করে ৷

সর্বাধিক পঠিত খবর

ত্বকে ফোসকা পড়লে কি করবেন?

খালি পেটে এক কোয়া রসুন!



হলুদ কমাবে যেসব রোগের ঝুঁকি

ঔষুধি গুণে ভরপুর থানকুনি পাতা

যৌনরোগ 'এমজি' হতে পারে পরবর্তী মরণব্যাধি


জোঁক চিকিৎসায় সুস্থ ১৫০ রোগী