বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯

English Version

বায়ুদূষণে অসুস্থ ক্ষতিপূরণ দাবি করে মামলা

No icon আমার পরিবেশ

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ০২ জুন’ ১৯: পরিবেশ রক্ষায় লড়ছে সারা বিশ্ব। সে লড়াই খুব বড় বা সংগঠিত না হলেও নানা প্রান্তের নানা মানুষ দূষণ রুখতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে। কোথাও প্লাস্টিক বর্জন হচ্ছে, কোথাও আবার হচ্ছে বৃক্ষরোপণ। এসবের মধ্যেই দূষণের বিরুদ্ধে সরকারের সঙ্গে লড়ছে প্যারিসের এক মা ও তাঁর মেয়ে। তাদের অভিযোগ, তীব্র বায়ুদূষণের কারণে তারা অসুস্থ হয়ে পড়ছে। এ কারণে তারা সরকারের কাছে দেড় কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে।

মঙ্গলবার প্যারিসের মন্ট্রিয়ল আদালতে এ মামলার শুনানি হয়েছে। বাদীরা দাবি করে, ২০১৬ সালের শীতকাল থেকে শহরে বায়ুদূষণের মাত্রা ভয়াবহ বেড়ে গেছে। এর ফলে নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগছে তারা। ৫২ বছরের মায়ের ফুসফুসে সমস্যা দেখা দিয়েছে, ১৬ বছরের কিশোরী মেয়ের হাঁপানি হয়েছে। এই অবস্থা ক্রমেই খারাপ হচ্ছে। তারা আরো দাবি করে, ফরাসি প্রশাসন বর্জ্য নিয়ন্ত্রণে একটুও উদ্যোগী নয়। শেষ কয়েক বছরে মানুষ বাড়ার সঙ্গে বেড়েছে গাড়ি। গাছ কেটে বানানো হয়েছে বাড়ি। ফলে স্বাভাবিকভাবেই বেড়েছে বায়ুদূষণ।

প্যারিসের এই মা ও মেয়ের দায়ের করা মামলাটি দেখে একই মামলা করতে চলেছে সারা ফ্রান্সের অসংখ্য মানুষ। কারণ বায়ুদূষণ ও এর কারণে শরীরে বাসা বাঁধা রোগ মহামারির মতো ছড়াচ্ছে সেখানে।

ফ্রান্সের পরিবেশ আন্দোলনকর্মীরা বলছেন, মামলাটি দূষণরোধের লড়াইয়ে একটি মাইলস্টোন। মামলা দায়েরকারী মা ও মেয়ে জয়ের মুখে দাঁড়িয়ে আছে। সরকার তাদের ক্ষতিপূরণ দিতে বাধ্য হবে। বায়ুদূষণের সঙ্গে যে শারীরিক অসুস্থতা সরাসরি সংযুক্ত, তা মেনে নিতে বাধ্য সরকার।

পাবলিক হেলথ ফ্রান্স এজেন্সির পরিসংখ্যান বলছে, প্রতিবছর দূষণজনিত ফুসফুসের রোগে এ দেশে অকালমৃত্যু হয় ৪৮ হাজার মানুষের। এর আগে গত বছর দূষণ নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগে ইউরোপিয়ান আদালতে কাঠগড়ায় তোলা হয়েছিল ছয়টি দেশকে। তাদের মধ্যে একটি ছিল ফ্রান্স। সে অভিযোগের পরও মোটেও বদলায়নি ফ্রান্স। এবার দেশটি মা ও মেয়ের মামলার মুখে হারতে বসেছে।

সূত্র: দ্য ওয়াল।

সর্বাধিক পঠিত খবর

জয়েন্টে ব্যথা বাড়ায় যে ৩ খাবার




লিচু খাওয়ার পর ভারতে ৫৩ শিশুর মৃত্যু

ডায়াবেটিস দূরে রাখতে খান জাম