রবিবার, ৩১ মে ২০২০

English Version

পরিবেশ দূষণের কারণে ৫৭ লাখ টাকা জরিমানা

No icon আমার পরিবেশ

সৈকত মূর্তজা — ২০ মে, ২০১৬: দূষিত তরলবর্জ্য, শব্দ দূষণ ও দুর্গন্ধ সৃষ্টির মাধ্যমে জনজীবন ও পরিবেশের ক্ষতিসাধন করায় ঢাকার আশেপাশের বিভিন্ন কারখানাকে ৫৭ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ ধার্য করেছে পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং এন্ড এনফোর্সমেন্ট উইং।

বৃহস্পতিবার পরিবেশ অধিদপ্তরের মনিটরিং এন্ড এনফোর্সমেন্ট উইং এর পরিচালক এ. কে. এম মিজানুর রহমান এই অভিযান পরিচালনা করেন। এতে ঢাকার পার্শ্ববর্তী জেলা নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর এবং কেরানীগঞ্জে অবস্থিত কারখানাকে জরিমানা করা হয়।

নিয়মিত মনিটরিং কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ইতিপূর্বে মনিটরিং এন্ড এনফোর্সমেন্ট টিম বর্ণিত এলাকার শিল্প প্রতিষ্ঠান যেমন- ওয়াশিং ও ডাইং কারখানা এবং পোল্ট্রি ফার্ম পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে তরলবর্জ্য পরিশোধনাগার (ইটিপি) ব্যতীত কিছু কারখানা পরিচালনা করতে দেখা যায়।

পরিবেশগত ছাড়পত্র এবং ইটিপিবিহীন ভাবে কারখানা পরিচালনা, শব্দ দূষণ ও দুর্গন্ধ সৃষ্টির মাধ্যমে জনজীবন ও পরিবেশের ক্ষতিসাধনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে পরিবেশ দূষণের জন্য নোটিসের মাধ্যমে পরিবেশ অধিদপ্তর-এর মনিটরিং এন্ড এনফোর্সমেন্ট উইং-এ তলব করে শুনানি গ্রহণ করা হয়।

শুনানিতে দুর্গন্ধ সৃষ্টির কারণে গাজীপুর রসি. পি. বাংলাদেশ কোঃ লিঃ কে ৫৪ লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা, দূষিত তরলবর্জ্য দ্বারা পরিবেশ দূষণের দায়ে নারায়ণগঞ্জের আকবর ডাইং-কে ১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা, কেরানীগঞ্জের ইডেন ওয়াশকে ১ লাখ ৪৪ হাজার টাকা এবং শব্দ দূষণের দায়ে জাহেদা মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজকে ৩০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ ধার্য করা হয়। কারখানাগুলোকে ক্ষতিপূরণের পাশাপাশি অতিসত্বর ইটিপি নির্মাণ করে কারখানা পরিচালনা এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে বন্ধের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

সর্বাধিক পঠিত খবর




করোনার বিরুদ্ধে একা লড়াই