রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২০

English Version

‘সমন্বিত নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ’ গঠনের প্রস্তাব

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা
৬৪দিন
:
১১ঘণ্টা
:
৩৯মিনিট
:
৫৬সেকেন্ড
No icon সুসংবাদ

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ০৮ সেপ্টেম্বর’ ১৯: নিরাপদ খাদ্য সম্পর্কিত আইন প্রণয়ন বা সংশোধনী নিশ্চিত করে ‘বাংলাদেশ সমন্বিত নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ’ গঠনের প্রস্তাব দিয়েছে কনশাস কনজ্যুমার সোসাইটি (সিসিএস)। শনিবার বিকালে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে সিসিএস আয়োজিত ‘ভোক্তা অধিকার ও নিরাপদ খাদ্য : চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায়  নিরাপদ খাদ্য সম্পর্কিত বিভিন্ন অভিমত ব্যক্ত করেন বিশেষজ্ঞরা। 

অনুষ্ঠানের শুরুতে মূল প্রবন্ধ তুলে ধরে এম জাকির হোসেন খান বলেন, 'জনসাধারণের কাছে খাদ্যের গুণগত মান সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য অনেক ক্ষেত্রেই পৌঁছায় না, যার ফলে তারা মানহীন খাদ্য ক্রয় করতে বাধ্য হয়। এছাড়া ভেজাল খাদ্য খেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কিংবা অসুস্থ ভোক্তার সরাসরি মামলা দায়ের করার বিধান নেই। নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট অংশীজনের মধ্যে পারস্পরিক সমন্বয়, সহযোগিতার অভাব আছে।'

আলোচনায় প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের পরিচালক কামরুজ্জামান কামাল বলেন, নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে এখানে ৪-৫টি সংস্থা কাজ করে। নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, বিএসটিআই, সিটি করপোরেশন, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর তো আছেই, এর বাইরে র‍্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করে। এখানে আমার মনে হয় একটি মাত্র প্রতিষ্ঠানকে যদি দায়িত্ব দেওয়া হয় এবং অন্য সবাই কাজ করে, সেক্ষেত্রে কাজের সমন্বয় ভালো হতে পারে। কারণ, আমরা এখন সমন্বয়হীনতার মধ্যে কাজ করছি।

আলোচনায় র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, 'আমি মনে করি আমরা যদি সবাই মিলে কাজ করি, উৎপাদন থেকে শুরু করে সমস্যাগুলোর প্রতি একটু মনোযোগ দেওয়া উচিত। আর একইসঙ্গে আমাদের দায়িত্বশীল যেসব সংস্থা আছে, তাদের ৫২টি নিম্নমানের পণ্যের বিষয়ে আরেকটু গভীরে যাওয়া উচিত ছিল। কারণ, প্রত্যেকটি প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ল্যাব আছে। তাদের মান নিয়ন্ত্রক বিভাগ উপেক্ষা করে এই পণ্য বাজারে কীভাবে এলো? এখানে দায়ী কে ছিল? এই বিষয়গুলো ভালোভাবে দেখতে হবে।'

সর্বাধিক পঠিত খবর





দেশে চিকিৎসা গবেষণা বাড়াতে হবে

ডিমেনসিয়া রোগীর আহার

জ্বর ঠোসা সারানোর সহজ উপায়



ময়মনসিংহে প্যাথেডিন ইনজেকশনসহ আটক ২