বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯

English Version

বাংলাদেশে ৫০০ কৃত্রিম পা বিতরণ করছে ভারত

No icon সুসংবাদ

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ১৭ অক্টোবর’ ১৯: দুই যুগের বেশি সময় ধরে বন্ধ জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালের কৃত্রিম অঙ্গ সংযোজন কেন্দ্রের কার্যক্রম। ফলে চরম বিপাকে পড়তে হচ্ছে পঙ্গু হওয়া হাজার হাজার মানুষকে।

গত ৩ বছর ধরে ইন্ডিয়ার জয়পুর ফুটের কৃত্রিম পা দেশে বিনামূল্যে বিতরণ করা হলেও স্থায়ী কেন্দ্র নির্মাণে নেয়া হয়নি কার্যকরী পদক্ষেপ। তবে ভারতের সার্বিক সহায়তায় শিগগিরই স্থায়ী অঙ্গ সংযোজন কেন্দ্র নির্মাণের আশ্বাস হাসপাতাল পরিচালকের।

মহাত্মা গান্ধীর ১৫০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রথমবার ৫০০ কৃত্রিম পা বিতরণ করছে ভারতীয় হাইকমিশন। এ পা দিয়ে হাঁটাচলা, দৌড়ানো, এমনকি গাছে ওঠা সম্ভব হওয়ায় আনন্দের চূড়ায় সৌভাগ্যবানরা।

প্রতি বছর অন্তত ৩ হাজার মানুষের কৃত্রিম পায়ের চাহিদা রয়েছে। অথচ জনবলের অভাবে ১৯৯৩ সালে বন্ধ হয়ে যায় অর্থোপেডিক হাসপাতালের কৃত্রিম অঙ্গ সংযোজন কেন্দ্রটি।

উচ্চমূল্য আর মানসম্পন্ন কৃত্রিম পায়ের অভাবে ভুক্তভোগীদের চেয়ে থাকতে হয় বিনামূল্যে বিতরণের দিকে। দেশের চাহিদা মেটাতে স্থায়ী কেন্দ্র চালুর বিকল্প নেই বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

সর্বাধিক পঠিত খবর

গাড়িতে চড়লে বমি ভাব জেনে নিন সমাধান



লিভার পরিষ্কার রাখে ৩টি খাবার



হঠাৎ বিকট শব্দ, ঝরে গেল সাত শিশুর প্রাণ

আলসারের লক্ষণগুলো জেনে নিন