শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০

English Version

বিএসএমএমইউ'তে “বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন” এর শুভ উদ্বোধন....

No icon সুসংবাদ

স্বাস্থ্যডেস্ক-০৬ এপ্রিল ২০২০- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া প্রধান অতিথি হিসেবে রবিবার  দুপুর ১২টা ৩০ মিনিটে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের এ ব্লকের ৫ তলায় অবস্থিত ডিজিটাল লাইব্রেরীতে আয়োজিত এক সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে টেলিফোনে বিশেষজ্ঞ পরামর্শ সেবা কেন্দ্র “বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন” এর শুভ উদ্বোধন করেন।

করোনা ও অন্যান্য সকল রোগে আক্রান্ত দেশের সকল রোগীদের জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে সময় উপযোগী মহতী এই সেবাটি চালু করা হয়েছে। রোগীরা সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ৩৩৩, ১৬২৬৩ অথবা ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ এ ডায়াল করে “বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন” মাধ্যমে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া যাবে।

এই বিশেষজ্ঞসেবা পরবর্তীতে দেশের টেলিমেডিসিন সেবাদানকারীদের মাধ্যমে আরো সম্প্রসারিত করা হবে। প্রকৃতপক্ষে, কোভিড ১৯ মহামারীর কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে সারা দেশের মানুষের কাছে চিকিৎসাবিষয়ক বিশেষজ্ঞ পরামর্শ সেবা পৌছে দেয়ার লক্ষ্যে টেলিফোনে বিশেষজ্ঞ পরামর্শ সেবা কেন্দ্র “বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন” চালু করা হলো।

উল্লেখ্য, এই সেবা প্রচলিত চিকিৎসা সেবার বিকল্প নয়, কিন্তু বর্তমানে বিশ্বব্যাপী উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা ও রাষ্ট্রসমূহ টেলিমেডিসিনের মাধ্যমেই অন্তবর্তীকালীন চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম চলমান রাখার সুপারিশ করেছে। সেই প্রেক্ষাপটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে “বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন” চালু করার সকল প্রযুক্তিগত আয়োজন সম্পন্ন করা হয়েছে। সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, সম্মানিত উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, উপ-উপাচার্য  (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান,  ফার্মাকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ও ইনফরমেশন টেকনোলজি সেলের ইনচার্জ অধ্যাপক ডা. মোঃ সায়েদুর রহমান প্রমুখসহ সংশ্লিষ্ট শিক্ষক, চিকিৎসক, রেসিডেন্টবৃন্দ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আমরা একটি স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে লিপ্ত রয়েছি। জাতির পিতার নামে প্রতিষ্ঠিত  দেশের প্রথম মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের প্রথম বিশেষজ্ঞ পরামর্শ সেবা কেন্দ্র “বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন” চালুর মাধ্যমে করোনা ছাড়াও অন্যসকল রোগে আক্রান্ত দেশের কোটি কোটি মানুষ উপকৃত হবে। মাননীয় উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে কর্তৃপক্ষকে সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সম্মানিত উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট উদ্ভূত পরিস্থতিতে চিকিৎসক সমাজ পিছিয়ে যাবে না। বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন, একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধেও চিকিৎসক সমাজ এগিয়ে এসেছিলেন। করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে চিকিৎসক সমাজ রোগীদের সেবা দানের মাধ্যমে লড়ে যাবেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সম্মানিত উপ-উপাচার্য  (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, করোনা ভাইরাসকে পরাজিত করতে চিকিৎসকদের এখনই যুদ্ধ যাবার শ্রেষ্ঠ সময়। রোগীর সেবা দান থেকে চিকিৎসক সমাজ পিছিয়ে যাবেন না। করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে চিকিৎসক সমাজ অবশ্যই জয়ী হবেন। 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সম্মানিত কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, করোনা ভাইরাস একটি বৈশ্বিক সংকট ও সুনামী। বাংলাদেশও এটা থেকে মুক্ত নয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষজ্ঞ পরামর্শ সেবা কেন্দ্র “বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন” চালুর মাধ্যমে নানা রোগে আক্রান্ত দেশের ৪ কোটি রোগীসহ অন্যরাও  বাসায় অবস্থান করে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ সেবা নিতে পারবেন। এরফলে দেশের মানুষ সুস্থ থাকবে, সমগ্র বাংলাদেশ নিরাপদ থাকবে।

ফার্মাকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ও ইনফরমেশন টেকনোলজি সেলের ইনচার্জ অধ্যাপক ডা. মোঃ সায়েদুর রহমান জানিয়েছেন, “বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন”-এর মাধ্যমে সেবাদানের সময়সীমা পরবর্তীতে রাত ১০টা পর্যন্ত বৃদ্ধি করার পরিকল্পনা রয়েছে।

এদিকে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিলন হলের এক্সটেশনে রেসিডেন্ট চিকিৎসকরা শনিবার থেকে করোনা ভাইরাস থেকে সুরক্ষা পাওয়ার জন্য ব্যবহৃত ফেস শিল্ড  তৈরি শুরু করেছেন।

অন্যদিকে বেতার ভবনের নিচ তলায় স্থাপিত ফিভার ক্লিনিকে রবিবার জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্টজনিত রোগে আক্রান্ত ৭২ জসেবা গ্রহণ করেছেন। জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্টজনিত রোগে আক্রান্ত রোগীরা ০১৪০৬ ৪২ ৬৪৪৩ এই নম্বরে কল করেও পরামর্শ সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।

সর্বাধিক পঠিত খবর




করোনার বিরুদ্ধে একা লড়াই