শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯

English Version

জিকা ভাইরাসের ঝুঁকিতে বাংলাদেশ

No icon হেলথ ক্রাইম

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ০৬ অক্টোবর’ ১৯: সারা দেশেই বেড়েছে এডিস মশা। এর মাধ্যমেই ছড়ায় আরেক বিপজ্জনক ভাইরাস জিকা। এডিস মশার ব্যাপক বিস্তার ও প্রতিবেশী দেশে আক্রান্ত রোগী থাকায় জিকা ভাইরাসের মারাত্মক ঝুঁকিতে বাংলাদেশে। কিন্তু দুটি গবেষণা প্রতিষ্ঠান ছাড়া দেশের কোনো হাসপাতালেই নেই জিকা শনাক্তের ব্যবস্থা।

১৯৪৭ সালে উগাণ্ডায় বানরের শরীরে প্রথম ধরা পড়ে জিকা ভাইরাস। ১৯৫২ সালে প্রথম শনাক্ত হয় মানবদেহে। এরপর তা ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের অনেক দেশে। ২০১৬ সালে প্রথম শনাক্ত হয় বাংলাদেশে।

ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়ার মতো জিকাও ছড়ায় এডিস মশার মাধ্যমে। এর লক্ষণ ডেঙ্গুর মতো হলেও আশি ভাগের ক্ষেত্রেই ধরা পড়ে না। ভাইরাস শরীরে থাকে বছর ধরে। এমনকি জিকা ভাইরাসে আক্রান্তের সঙ্গে যৌন সম্পর্কের মাধ্যমেও ছড়ায় ওই রোগ। জিকা আক্রান্ত হয়ে গর্ভবতী হলে অথবা গর্ভবতী জিকা আক্রান্ত হলে নানা শারীরিক ত্রুটি নিয়ে জন্ম নেয় শিশু।

কীটতত্ত্ববিদরা বলছেন, সারা দেশে এডিস মশার ব্যাপক বিস্তার এবং ভারত-নেপালে জিকা আক্রান্ত রোগী থাকায় মারাত্মক ঝুঁকিতে বাংলাদেশ।

আশঙ্কার কথা হলো আইইডিসিআর ও আইসিডিডিআরবি ছাড়া দেশের কোনো হাসপাতালেই নেই জিকা শনাক্তের ব্যবস্থা।

বিশ্ব স্বাস্থ্যের জন্য জিকা মারাত্মক হুমকি হলেও এখনো আবিষ্কার হয়নি ভ্যাকসিন।

সর্বশেষ খবর

  হাই থটস অফ থটফুলম্যান তারেক সোলাইমান


  মুখ ও পায়ে পানি জমার বিভিন্ন কারণ


  বায়ুদূষণের মাত্রার ওপর ভিত্তি করে গাড়ির ওপর শুল্কারোপ


  ইস্ট ডেল্টায় মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত


  প্রক্রিয়াজাত খাদ্য উৎপাদনে নারী উদ্যোক্তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে: মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী


  বাংলাদেশে ৫০০ কৃত্রিম পা বিতরণ করছে ভারত


  শুধু একজন রোগীর জন্য ওষুধ বানালেন বিজ্ঞানীরা


  ডোপ টেস্ট পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করল সরকার


  জাপানে টাইফুন হাগিবিসের তাণ্ডবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৭৪


  ১৬ অক্টোবর, ১৯৭১: প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া ও সোভিয়েত প্রেসিডেন্ট নিকোলাই পদগর্নির মধ্যে আলোচনা হয়।


সর্বাধিক পঠিত খবর





শরীরের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে - আমলকি



ম্যাজিকের মতো অসুখ সারবে নিমপাতায়

মিলল প্লাস্টিক বধের ‘অস্ত্র’!