google-site-verification=pleBAPcUT-HwHq3xSe6nAu868BfTgpgJAuvqe5HWCsM

শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

English Version

ক্ষীণদৃষ্টিতে আক্রান্ত চীনের ৭০ শতাংশ শিশু

No icon শিশু কর্নার

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ২৩ জানুয়ারি’২০: প্রায় ১৪০ কোটি জনসংখ্যার দেশ চীনে মায়োপিয়ায় (ক্ষীণদৃষ্টি) আক্রান্ত অন্তত ৪৫ কোটি মানুষ। অর্থাৎ দেশটিতে প্রতি তিনজনের একজনই চোখের সমস্যায় ভুগছেন, যেখানে বিশ্বব্যাপী এ সংখ্যা গড়ে প্রতি পাঁচজনে একজন। চীনে মায়োপিয়ার দুর্ভোগে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত স্কুলশিশুরা। ২০১৮ সালে ১০ লাখ শিশুর ওপর চালানো এক সরকারি জরিপে দেখা গেছে, ১২ থেকে ১৪ বছর বয়সী ৭২ শতাংশ শিশুই মায়োপিয়ায় ভুক্তভোগী। ২০১০ সালে এ সংখ্যা ছিল ৫৮ শতাংশ।

ব্রিটিশ ম্যাগাজিন দ্য ইকোনমিস্টের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। মায়োপিয়া হচ্ছে গ্লুকোমার মতো চোখের ভয়ানক রোগের প্রাথমিক লক্ষণ। এ রোগে চোখ পুরোপুরি অন্ধ হয়ে যেতে পারে। ২০১৮ সালে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং মায়োপিয়ার প্রাদুর্ভাব স্বীকার করে এটিকে অনেক বড় সমস্যা হিসেবে উল্লেখ করেন এবং নির্মূলের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

২০১৮ সালে ১০ লাখ শিশুর ওপর চালানো এক জরিপে দেখা গেছে, ১২ থেকে ১৪ বছর বয়সী ৭২ শতাংশ শিশুই মায়োপিয়ায় আক্রান্ত যা ২০১০ সালে ছিল মাত্র ৫৮ শতাংশ। প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্লুকোমার মতো চোখের ভয়ানক রোগের প্রাথমিক লক্ষণ হচ্ছে মায়োপিয়া। গ্লুকোমায় আক্রান্ত কোনো ব্যক্তি চিরতরে অন্ধ হয়ে যেতে পারে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, মায়োপিয়ায় জিনের ভূমিকা খুবই কম। তবে এর সঙ্গে জড়িত জিনগুলো পরিবেশগত কারণে প্রভাবিত হতে পারে। কাজের অতিরিক্ত চাপ, দীর্ঘসময় কাছের বস্তুর দিকে তাকিয়ে থাকা, সহজলভ্য স্মার্টফোন এবং কম্পিউটার গেমস ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়ায় চীনে এ সমস্যা এতটা প্রকট আকার ধারণ করেছে বলে মনে করছে সংস্থাটি।

২০০৮ সালে সিডনি, সিঙ্গাপুর ও চীনের শিশুদের ওপর চালানো একদল অস্ট্রেলিয় গবেষকের পরীক্ষার ফলাফলও একই রকম তথ্য জানিয়েছিল। এ থেকে পরিত্রানে চীনা কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোতে শিশুদের অন্তত এক ঘন্টা দিনের আলোয় খেলাধুলা নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছে। এছাড়া অতি সংবেদনশীল শিশুদের লিখিত কোনো হোমওয়ার্ক না দেয়ার নির্দেশের পাশাপাশি আরো বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে।

সর্বাধিক পঠিত খবর


জ্বর কেমন হলে বুঝবেন করোনার লক্ষণ


নায়ক ফারুকের অবস্থার আরো অবনতি

দেশে ভ্যাকসিন মিলছে না এ বছর

করোনাই শেষ মহামারি নয়: ডব্লিউএইচও