শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

English Version

ভারতে ২৫ শতাংশ ওষুধই নকল!

No icon ফার্মাসিউটিক্যালস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ১৭ নভেম্বর ২০১৯: ভারতের বাজারে বিক্রি হওয়া ওষুধের প্রায় ২৫ শতাংশই নকল! অ্যাসোসিয়েটেড চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি’র প্রতিবেদনের এই তথ্য জানানো হয়। বলা হয়, নকল ওষুধ বিক্রি করে প্রায় ৩০ হাজার কোটি টাকা লাভ করেছে। ওই নকল ওষুধগুলোর মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিবায়োটিক, ম্যালেরিয়ার ওষুধ, ব্যথা কমানোর ওষুধ, এমনকি জন্মনিয়ন্ত্রণের ওষুধও।

এর আগে ২০১০ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ‘হু’ জানিয়েছিল, সারা বিশ্বে বিক্রি হওয়া চিকিৎসার সরঞ্জামের প্রায় চার শতাংশ নকল। যতোদিন যাচ্ছে ততোই এই সমস্যা বেড়ে চলেছে এবং ভবিষ্যতে তা আরো বড় আকার ধারণ করবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছিল।

বিশেষজ্ঞরা সমীক্ষা চালিয়ে দেখেছেন, ওষুধ তৈরি থেকে শুরু করে তার ব্যবহার পর্যন্ত যে পদ্ধতি, তাতে যথাযথ নিয়ম ও শর্ত কোনোটাই মানা হয় না। অন্যদিকে, অনেক রাজ্যে সরকারি হাসপাতালগুলোতে রোগীদের সঠিক গুণমানের ওষুধ পর্যন্ত দেওয়া হয় না। এর কারণে বাড়ছে রোগের পরিমাণও।

বিশ্বব্যাপী ওই নকল ওষুধের কারবার বন্ধ করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিল আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো। পাশাপাশি, কয়েকশো কোটি টাকার অবৈধ ও নকল চিকিৎসা সরঞ্জাম এবং ওষুধ বাজেয়াপ্ত করেছিল বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থাও। কিন্তু তাতে কোনো লাভ হয়নি। ভারতেও বিভিন্ন সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে, একাধিক রাজ্যের হাসপাতালের চিকিৎসা পদ্ধতি, সরঞ্জাম প্রভৃতি সঠিক গুণমানের নয়।

সর্বাধিক পঠিত খবর


চূড়ান্তভাবে নিষিদ্ধ হলো রেনিটিডিন



শিশু দ্রুত লম্বা হবে যেসব খাবারে