রবিবার, ২০ আগস্ট ২০১৭

English Version

সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে একই দামে বিক্রি হবে হার্টের রিং

No icon ফার্মাসিউটিক্যালস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ২০ এপ্রিল ২০১৭: মঙ্গলবার হার্টের রোগীদের জন্য প্রয়োজনীয় রিংয়ের মূল্য নির্ধারণে ১৭ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করে জাতীয় ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর। এই কমিটি সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনায় রিংয়ের সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ একটি মূল্য নির্ধারণ করবে আগামী দেড় থেকে দুই মাসের মধ্যে। এ ছাড়া হার্টের রিংয়ের গায়ে মূল্য লেখা থাকবে। পরবর্তী সময়ে অধিদফতরের নির্ধারিত মূল্যেই আমদানিকারক ও বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলো রিং বিক্রি করতে বাধ্য থাকবে। এদিকে হৃদরোগ হাসপাতালে বুধবার কোনো রোগীকে রিং পরানো হয়নি। তবে রোগীকে রিং পরানো ছাড়া বাকি কাজ হয়েছে।

রিং বাণিজ্যের বিষয়টি ধরা পড়েছে বিদেশে রিং পরাতে গিয়ে। অনেককেই নিম্নমানের রিং পরানো হয়েছে উন্নতমানের বলে। তবে রিং পরানোর ৫-৬ মাসের মধ্যে ইনফেকশন দেখা দেয়। ফের রিং পরানো হলে রোগীদের আবারও ইনফেকশন হয়। উপায় না পেয়ে বিদেশে গেলে চিকিত্সকরা জানান, পরানো রিং ছিল নিম্নমানের।

ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে বাংলাদেশ কার্ডিওভাসকুলার ইকুইপমেন্ট অ্যান্ড ডিভাইস ইমপোর্টার অ্যাসোসিয়েশনের একটি বৈঠক হয়। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, হার্টের রিংয়ের গায়ে নির্ধারিত মূল্য (এমআরপি) লেখা থাকবে। ব্যবসায়ী এবং রোগী উভয় পক্ষের কেউ যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেটা দেখা হবে।

এদিকে রিংয়ের মূল্য নির্ধারণের এই বিষয়টিকে স্বাগত জানিয়েছেন হৃদরোগ বিশেষজ্ঞরা। তবে তারা বলছেন, প্রতারকরা বসে থাকবে না। তারা হয়তো নতুন কোনো ফন্দিতে প্রতারণা করবেন। এই বিষয়ে সতর্ক থাকার এবং নজরদারি বাড়ানোর পরামর্শ দেন তারা।

সর্বাধিক পঠিত খবর

মুখে ঘা হওয়ার কারণ ও প্রতিকার


আপনিও এই রোগে ভুগছেন না তো!



হাত এই অবস্থানে রাখুন ... দেখুন

ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করে যে খাবার


ক্যানসার-হৃদরোগ-অবসাদ! আধঘণ্টায় আরোগ্য!

কীভাবে দূর করবেন সিগারেটের নেশা?