শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯

English Version

০৭ জুন, ১৯৭১: ফেনীতে মুক্তিবাহিনীর ওপর পাকসেনারা অতর্কিত হামলা চালায়

No icon স্পট লাইট

ডেস্ক রিপোর্ট: ০৭ জুন’ ১৯: ফেনীতে মুক্তিবাহিনীর ভান্দুরা রেল স্টেশন-সেলোনিয়া নদী তীরে অবস্থানের ওপর পাকসেনারা অতর্কিতে হামলা চালায়। দিনভর এবং এমনকি রাতেও হানাদাররা মর্টার গোলাবর্ষণ অব্যাহত রাখে। পাকসেনাদের এ আক্রমণে মুক্তিযোদ্ধারা তাঁদের অবস্থানে অটুট থাকে।

সাতক্ষীরার দেবহাটা থানা ক্যাম্প আক্রমণের উদ্দেশ্যে শ্রীপুরের খেলার মাঠের পার্শ্বে একটি বাড়িতে আশ্রয়রত ৪৫ জনের একদল মুক্তিযোদ্ধার ওপর ভোরে পাকবর্বররা অতর্কিতে আক্রমণ চালায়।

ঢাকায় সামরিক বাহিনীকে আরো আক্রমণাত্মক করার জন্য ১৫০ নং সামরিক আদেশ জারি করা হয়। এই আদেশ বলে সামরিক সেক্টরগুলোকে পুনর্গঠিত করা হয়।

ইসলামাবাদে জনৈক মুখপাত্র ঘোষণা করেন, পূর্ব পাকিস্তানের জাতীয় সংস্থাগুলোর জাতিসংঘের সাহায্য সামগ্রী বন্টন করার পূর্ববর্তী সিদ্ধান্ত পাকিস্তান পরিত্যাগ করেছে।

মুসলিম লীগ নেতা খান এ. সবুর ঢাকায় এক বিবৃতিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আগে পাকিস্তানি পতাকা ও সঙ্গীত পরিবেশনের দাবি করেন এবং ইসলামী ও পাকিস্তানি আদর্শে মিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার কথা বলেন।

আবদুর খান ফজলে রব চৌধুরী, এম.এন.এ নূরুল ইসলাম সিকদার প্রমুখের নেতৃত্বে ঝালকাঠির স্বাধীনতা বিরোধীরা সংগঠিত হয়। তারা সিদ্ধান্ত নেয়, "যারা মুক্তিযুদ্ধের কথা বলবে তাদেরকেই ধরতে হবে।"

সর্বাধিক পঠিত খবর








পিঠের মেদ দ্রুত কমানোর তিন উপায়