বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯

English Version

১৮ জুন’ ৭১: মুক্তিযোদ্ধারা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পাকসেনাদের ওপর অতর্কিত আক্রমণ চালায়।

No icon স্পট লাইট

ডেস্ক রিপোর্ট: ১৮ জুন ’১৯: ১৯৭১ সালের ১৮ জুন দিনটি ছিল শুক্রবার। একাত্তরের এই দিনে লে. হুমায়ূনের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধাদল কুমিল্লা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া সড়কে পাকসেনাদের সাইদাবাদ ঘাঁটির পেছনদিক থেকে প্রবেশ করে অতর্কিত আক্রমণ চালায়। কয়েক ঘণ্টা যুদ্ধের পর পাকসেনারা তিনটি জঙ্গী বিমানের সহায়তায় পাল্টা আক্রমণ জোরদার করে। আক্রমণ শেষে মুক্তিযোদ্ধাদল গ্রামের গোপন পথে মেঘনার দিকে পশ্চাদপসরণ করে। এ যুদ্ধে ৫০-৬০ জন পাকসেনা হতাহত হয় ও তাদের ব্যাপক ক্ষতি হয়। কুমিল্লার মুক্তিবাহিনীর কৈখোলা অবস্থানের ওপর পাকসেনারা গোলন্দাজ বাহিনীর সাহায্যে প্রচন্ড- আক্রমণ চালায়। এ যুদ্ধে কৈখোলা পাকসেনাদের দখলে চলে যায়।

রাতে মেজর সালেক চৌধুরীর নেতৃত্বে চতুর্থ বেঙ্গলের ‘এ’ কোম্পানি কৈখোলায় অবস্থানরত পাকসেনাদের আক্রমণ করে। এছাড়া হাবিলদার সালামের প্লাটুন শিবপুরের দিক থেকে এবং সুবেদার আবদুল হক ভুঁইয়ার প্লাটুন দক্ষিণ দিক থেকে শত্রুসেনাদের অবস্থানের ভেতর অনুপ্রবেশ করে। দুই ঘণ্টাব্যাপী তীব্র যুদ্ধের পর পাকসেনারা কৈখোলা সম্পূর্ণভাবে পরিত্যাগ করে এবং মুক্তিবাহিনী কৈখোলায় তাঁদের দখল পুনঃস্থাপন করে। এ যুদ্ধে পাকবাহিনীর একজন জেসিওসহ ৩১ জন সৈন্য হতাহত হয় । মুক্তিযোদ্ধারা অনেক অস্ত্রশস্ত্র ও যুদ্ধসরঞ্জাম দখল করে।

সর্বাধিক পঠিত খবর





শরীরের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে - আমলকি



মিলল প্লাস্টিক বধের ‘অস্ত্র’!

ম্যাজিকের মতো অসুখ সারবে নিমপাতায়

লিভারকে পরিষ্কার রাখে যে ৩টি খাবার