বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯

English Version

০৮ জুলাই ’৭১: সিলেটে মুক্তিযোদ্ধারা পাকবাহিনীর জৈন্তাপুর অবস্থানের ওপর আক্রমণ চালায়।

No icon স্পট লাইট

ডেস্ক রিপোর্ট: ০৮ জুলাই ’১৯: সিলেটে ডাউকি ক্যাম্প থেকে মুক্তিযোদ্ধারা পাকবাহিনীর জৈন্তাপুর অবস্থানের ওপর আক্রমণ চালায়। এই অতর্কিত আক্রমণে বহু পাকসেনা নিহত হয়। অপরদিকে, বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর মুত্তালিব আহত হন।সিলেটের মুক্তিযোদ্ধারা পাকবাহিনীর শাহবাজপুর রেলওয়ে স্টেশন ঘাঁটি আক্রমণ করে। এতে ৭ জন পাকসেনা হতাহত হয়।

সান্ধ্যভোজে ধানমন্ডির ‘সাংহাই’ চাইনিজ রেস্টুরেন্টে আগত পাকিস্তানি অফিসারদের ওপর মুক্তিবাহিনীর গেরিলা দল গ্রেনেড ছোঁড়ে। ফলে ২/৩ জন পাকিস্তানি অফিসার নিহত হয়।

পাকবাহিনীর সাথে দু‘দিনব্যাপী প্রচন্ড যুদ্ধের পর মুক্তিবাহিনী দিনাজপুর জেলার ঠাকুরগাঁও মহকুমা শহর দখল করে।

আকাশবানীর খবরেও বলা হয় মুক্তিবাহিনী প্রচন্ড আক্রমণ চালিয়ে ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইল জেলার তিনটি থানা হানাদার মুক্ত করে। সিলেট, কুমিল্লা, ফেনী, কুষ্টিয়া, ময়মনসিংহ প্রভৃতি রণাঙ্গনে মুক্তিবাহিনীর তৎপরতা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং সর্বত্রই ইয়াহিয়া খানের দস্যুবাহিনী নাস্তানাবুদ হচ্ছে। বিপুল সংখ্যক পাকসেনা নিহত হয়েছে।

সকালে মুক্তিযোদ্ধারা পাকবাহিনীর নবীনগর অবস্থানের ওপর অতর্কিত আক্রমণ চালায়। এই আক্রমণে ৭ জন পাকসেনা ও ৫ জন দালাল নিহত হয়। অপরদিকে একজন মুক্তিযোদ্ধা আহত হয়।

সর্বাধিক পঠিত খবর





শরীরের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে - আমলকি



মিলল প্লাস্টিক বধের ‘অস্ত্র’!

ম্যাজিকের মতো অসুখ সারবে নিমপাতায়

লিভারকে পরিষ্কার রাখে যে ৩টি খাবার