বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১

English Version

ব্যবসায়ী নামের কলঙ্ক কানাডা প্রবাসী ডা. গুলশান আক্তার এবং ইঞ্জি: জাহিদুল আলম

No icon স্পট লাইট

তাপস রায়হান, ২,১২,২০২০ :  বাংলাদেশী কানাডিয়ান দম্পতির ফেসবুক আইডিতে দেখা যায়, দুজনই অনেক বড় ব্যবসায়ী। অথচ তাদের কোন আইনজ্ঞ নেই, যিনি পরামর্শ দেবেন- এ ধরনের মিথ্যা, বানোয়াট, মনগড়া হেইটস্পীচ ফেসবুক বা অনলাইনে প্রকাশ বেআইনী। যার ফলে বাংলাদেশ সরকার এবং ফেসবুক এধরনের অপরাধীকে গ্রেফতার পর্যন্ত করতে পারে।

আমারহেলথ ডটকম একটি প্রতিষ্ঠিত, স্বনামধন্য এবং সরকারি অনুমোদনপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য বিষয়ক অনলাইন নিউজ পোর্টাল।

আমারহেলথ ডটকম লিমিটেড জয়েন্টস্টকের নিবন্ধিত একটি প্রতিষ্ঠান, যার ঠিকানা ৬৫, ময়মনসিংহ লেন ৬ষ্ঠ তলা, বাংলামটর, ঢাকা। ডা. গুলশান আক্তার এবং ইঞ্জিনিয়ার জাহিদুল আলম যার ৬০% শেয়ারের মালিকানা ক্রয় করেছেন।

আমারহেলথ ডটকম লিমিটেডের লাইভ শেয়ার হস্তান্তর ও মিলাদ মাহফিল ১৩ নভেম্বর ২০২০,অনুষ্ঠিত হয় ।

জয়েন্ট স্টকের নিয়মানুযায়ী, চুক্তি অনুসারে প্রতিমাসে তারা সমস্ত খরচের ৬০ শতাংশ বহন করতে বাধ্য। লাভও পাবেন তারা ৬০%। এ পর্যন্ত অফিস ভাড়া, কর্মরত সাংবাদিক ও অন্যান্য স্টাফের বেতনসহ সমস্ত খরচ- কোনটাই বহন করেন নি।

এদিকে, ডা.অপূর্ব পন্ডিতের নিজ নামে ট্রেড লাইসেন্স, ব্যাংক একাউন্ট, নেম সার্ভার, ট্রিটমেন্ট ডট নেটওয়ার্কের  উদ্বোধন করা হয় ১৭ নভেম্বর। যার অফিসিয়াল ঠিকানা ৬৫, ময়মনসিংহ লেন ৩য় তলা, বাংলামটর, ঢাকা। সেদিন থেকেই ট্রিটমেন্ট ডট নেটওয়ার্কের মালিকানা দাবি করে ডা. গুলশান আক্তার এবং তার স্বামী, ভাই, দেবর, কিছু সাঙ্গপাঙ্গ মিলে ফেসবুকে অবান্তর, অশালীন, অভব্য, কুরুচিপূর্ণ হেইটস্পীচ তার টাইমলাইনে শেয়ার শুরু করেন।

উদ্দেশ্য, ডা অপূর্ব পন্ডিতের বিরুদ্ধে ফেসবুকে এধরনের হেইটস্পীচ দিয়ে তিনি কোম্পানির দখল নেবেন এবং নেহায়েত মিথ্যাচার দিয়ে ট্রিটমেন্ট ডট নেটওয়ার্ক এবং আমারহেলথ ডটকমের সুনাম নষ্ট করবেন।

শুধু তাই নয়, তিনি কানাডা থেকে সম্পাদনা করেন বাংলাদেশের ঠিকানা বিহীন ওয়েব পোর্টাল, যেখানে প্রমাণাদি ছাড়া নিউজ করেছেন।

কী ভাষায়, সংবাদ পরিবেশন করতে হয়- তা জানেন না। শুধু তাই নয়, প্রচারিত সংবাদে যে অমার্জিত ভাষা, দুর্বল বাক্যগঠন এং খিস্তিখেউর করা হয়েছে, তা সরকারের  নির্দেশীত সংবাদ প্রচার ও তথ্য আইনের পরিপন্থী।

মনগড়া সংবাদে যা উল্লেখ করা হয়েছে এবং দাবি করা হয়েছে, তা রীতিমতো একপেশে। প্রকৃত ঘটনার সঙ্গে এর বিন্দুমাত্র সম্পর্ক নেই। এ ব্যাপারে বিডিওয়ে২৪ ডটকম  সম্পাদকের সঙ্গে যোগাযোগের কোনো ধরণের সুযোগ না থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে আমারহেলথ ডটকম সম্পাদক ডা. অপূর্ব পন্ডিতের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন- বাংলাদেশের নিউজ পোর্টাল, সম্পাদক কানাডায় তার নিউজে যা বলা হয়েছে, তাতে আমি বিস্মিত এবং মর্মাহত। তিনি আরও বলেন-  এইসমস্ত অপ্রকৃতিস্থ আচরণ কোনোভাবেই কাম্য নয়। এরা কেনো অন্যদেশে বসে, অফিস ব্যবস্থাপনা ছাড়াই উদ্দেশ্যমূলক এবং আক্রমণাত্মক নিউজ করছেন?

পৃথিবীতে, ন্যুনতম যারা ব্যবসা বোঝেন, অন্তত: এটুকু জানেন, কোম্পানির শেয়ার কিনলে আচরণে জয়েন্টস্টকের নীতিমালা মানতে হবে। না মানলে বা কোনো পরিচালকের বিরুদ্ধে পাবলিকলি পোস্ট দিলে তা হবে- বাংলাদেশ দণ্ডবিধির আইনী অপরাধ। তাই এ পর্যায়ে নি:সন্দেহে বলা যায়, ডা.গুলশান আক্তার ও ইঞ্জিনিয়ার জাহিদুল আলম ব্যবসায়ী নামের কলঙ্ক।

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন- বেআইনী এ ধরণের কার্যক্রমের বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় ছাড়া উপায় নেই। আমি ইতোমধ্যে জিডি করেছি, যা সাইবার ক্রাইমে তদন্তাধীন।উপযুক্ত প্রমাণাদি আদালতে উপস্থাপন করা হবে। আশা করি, আইন শৃংখলা বাহিনী এধরণের মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেবেন। (চলবে.. )

সর্বাধিক পঠিত খবর





করোনার নতুন ধরন ছড়িয়েছে নানা দেশে



দেশে প্রথম দফায় করোনার টিকা পাবেন যারা