রবিবার, ২৬ মে ২০১৯

English Version

কিডনিতে পাথর! কিভাবে বুঝবেন?

No icon হেলথ টিপস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ০২ ফেব্রুয়ারি ১৯:শরীরের চাহিদা অনুযায়ী পানি পান, মূত্রজনিত কোনো সমস্যা হচ্ছে কি না সে খেয়াল রাখা কিংবা তলপেটে বা কোমরে একটানা ব্যথা থাকলে তা নিয়ে সতর্ক থাকা— কিডনির খেয়াল রাখা বলতে এইটুকুই। সাধারণত, কিডনির যত্নের বিষয়ে এর চেয়ে বেশি কিছু ভাবার অবকাশ রাখেন না অধিকাংশ মানুষ।

যেভাবে বুজবেন কিডনিতে পাথর

১. বারবার প্রস্রাব পাচ্ছে? প্রসাব পরিষ্কার হচ্ছে না?

হঠাত্‍‌ করে যদি এমন পরিবর্তন আসে, আগে থাকতেই সতর্ক হোন। ঘনঘন প্রস্রাব, প্রস্রাব করতে গিয়ে আটকে আটকে যাওয়া, এসবই কিডনির সমস্যার প্রাথমিক লক্ষণ।

২. ঘনঘন শ্বাস

কিডনির সমস্যা তৈরি হলেই অতিরিক্ত ফ্লুইড গিয়ে ফুসফুসে জমা হয়। যে কারণে শ্বাসের কষ্ট হয়। ঘনঘন শ্বাস পড়ে। একটু ছুটোছুটিতেই হাঁফ ধরে যায়।

৩. প্রসাবের সঙ্গে রক্ত বেরোচ্ছে কি না, খেয়াল করেছেন?

যদি প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত পড়ে, দেরি না-করে ডাক্তারের কাছে যান। কিডনির সমস্যার ক্ষেত্রে এটা বড় লক্ষণ।

৪. প্রস্রাবে ফেনা হচ্ছে?

এটা কিন্তু একদম স্বাভাবিক লক্ষণ নয়। কিডনির সমস্যার ক্ষেত্রে এমনটা হয়। শরীর থেকে প্রোটিন গিয়ে মূত্রে মেশে বলেই ফেনা তৈরি হয়।

৫. পা ফুলছে না তো?

টক্সিন, বর্জ্য ছাড়াও শরীর থেকে অতিরিক্ত ফ্লুইড বের করে দেয়ার দায়িত্ব হল কিডনির। যখন কিডনি সেটা পারে না, ফ্লুইড-সহ সমস্তটাই শরীরে জমে থাকে। যে কারণে পা ফুলে যায়। মুখ ভার ভার লাগে।

৬. সামান্য পরিশ্রমেই খুব ক্লান্ত হয়ে পড়ছেন?

কিডনি থেকে নির্গত হয় এরিথ্রোপোয়েটিন হরমোন। এই হরমোন লোহিত রক্তকণিকাকে অক্সিজেন বহন করে নিয়ে যেতে সাহায্য করে। কিডনি ঠিকভাবে কাজ না-করলে, সেক্ষেত্রে এরিথ্রোপোয়েটিনের পরিমাণ কমে আসে। ফলে রক্তাল্পতার লক্ষণ দেখা যায়। শরীর দুর্বল লাগে। অল্প পরিশ্রমেই ক্লান্তি চেপে ধরে।

৭. মাঝমধ্যে মাথা ঘুরছে?

মনঃসংযোগ করতে পারছেন না? অ্যানিমিয়া বা রক্তাল্পতার ক্ষেত্রেও এমন লক্ষণ দেখা যায়। তবে, কিডনির সমস্যার ক্ষেত্রে এই লক্ষণগুলো আরো প্রকট। মস্তিষ্কে কম অক্সিজেন যাওয়ার কারণেই হঠাৎ‌ হঠাৎ‌ মাথা ঘুরে যায়। মনঃসংযোগের ক্ষেত্রে ব্যাঘাত ঘটে।

সর্বাধিক পঠিত খবর


মুরগির কলিজা কতটা উপকারী?




যেসব ভুল ডেকে আনে স্ট্রোক

তুলসি পাতার অসাধারণ ঔষধী গুণাগুণ


লিভার পরিষ্কার রাখে যে খাবার