বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯

English Version

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে করণীয়

No icon হেলথ টিপস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ২১ মার্চ '১৯ : সুন্দর চেহারা, মিষ্টি হাসি... অথচ তারপরও অনেকে কাছে আসতে চায় না।  কাছে না আসার কারণটাও কেউ বলে না সরাসরি। মুখে গন্ধ! চলুন, এর কারণ ও দূর করার কিছু উপায় জেনে নেওয়া যাক।

প্রধান কারণ

মুখে দুর্গন্ধের প্রধান কারণগুলো হচ্ছে নিয়মিত মুখ, দাঁত, মাড়ি ও জিহ্বার যত্ন না নেওয়া। যারা নিয়মিত ওষুধ খান, তাদের তা থেকেও মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে। কারণ ওষুধ সেবন মুখের লালা উৎপাদন কমিয়ে ফেলে, বলেন মিউনিখ শহরের ফার্মাসিস্ট ক্রিটিয়ানে শল্টেন।

জিহ্বার স্তর

জিহ্বায় জমা হয় তিন রকমের ব্যাকটেরিয়ার স্তর আর সেই স্তর থেকে দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। তাই ডাক্তারদের পরামর্শ, ভালো করে মুখ পরিষ্কার করা প্রয়োজন। তবে শুধু দাঁত পরিষ্কার করা যথেষ্ট নয়। প্রতিদিন ভালোভাবে, জিহ্বা পরিষ্কার করতে হবে। তবে সেটা করতে হবে জিহ্বায় কোনোরকম আঘাত না দিয়ে।

দাঁতের ফাঁক

দাঁতের ফাঁকে যেসব খাবার জমে থাকে, সেগুলো খুব ভালো করে পরিষ্কার করা দরকার। জমে থাকা খাবার থেকে দুর্গন্ধ বের হয়। তাই প্রতিদিন সকাল এবং রাতে বিছানায় যাওয়ার আগে যত্ন করে মুখ পরিষ্কার করতে হবে। ভালো হয় যদি যে কোনো কিছু খাওয়ার পরপরই মুখ পরিষ্কার করা যায়।

ডাক্তারি পরামর্শ

যাদের মুখে দুর্গন্ধ রয়েছে, তাদের প্রথমেই আলোচনা করা দরকার দাঁতের ডাক্তারের সাথে। কারণ তিনিই সমাধান খুঁজে দেবেন। মুখে দুর্গন্ধ পেট বা লিভারের কোনো সমস্যার কারণেও হতে পারে। তাই প্রয়োজনে দাঁতের ডাক্তার অন্য ডাক্তারের কাছেও পাঠাতে পারেন। দুর্গন্ধের সঠিক কারণ খুঁজে পেলেই যে সঠিক চিকিৎসা সম্ভব!

ছোট থেকেই শিক্ষা

বাচ্চাদের ছোটবেলা থেকেই শেখানো প্রয়োজন কীভাবে দাঁত এবং মাড়ি পরিষ্কার করতে হয়। প্রতিদিন সকালে এবং রাতে অবশ্যই দাঁত ও জিহ্বা ব্রাশ করা প্রয়োজন, ঠিক যেমন প্রতিদিন শরীর ঠিক রাখতে খাওয়া-দাওয়া দরকার।

সহযোগিতা

মুখে দুর্গন্ধের বিষয়টি নিয়ে কেউ কথা বলে না। অথচ এক্ষেত্রে সবচেয়ে ভালো হয় যদি যার সমস্যা, তাকে কোনোরকম আঘাত না দিয়ে সরাসরি সুন্দরভাবে বিষয়টি সম্পর্কে আলোচনা করা যায় বা পরামর্শ দেওয়া যায়।

চুইংগাম

সাময়িকভাবে মুখের গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে বিভিন্ন ধরণ এবং স্বাদের চুইংগাম। তাছাড়া শুকনো জিহ্বায় মুখের লালা উৎপাদনেও কিছুটা ভূমিকা রাখে চুইংগাম।

শক্ত দাঁত ও মাড়ি

ঝকঝকে শক্ত দাঁত ও মাড়ি হলেই তাজা কচকচে আপেলসহ অন্যান্য শক্ত জাতীয় ফলের পূর্ণ স্বাদ গ্রহণ করা সম্ভব। এর জন্য অবশ্য যথেষ্ট ফলমূল এবং সবজিও খেতে হবে, যাতে করে পেট পরিষ্কার থাকে। তাছাড়া দিনে অন্তত ১০ গ্লাস পানি খাওয়া প্রয়োজন। এই পরামর্শই দিয়ে থাকেন বিশেজ্ঞরা।

সর্বাধিক পঠিত খবর

লিভার পরিষ্কার রাখতে যা খাবেন

রক্তনালীতে ব্লক রোধে যা খাবেন


শরীরকে ডি-টক্সিফাই করে রসুন !



গরমের ক্লান্তি দূরে করণীয়

শ্বেতি রোগ কি, নিরাময়ের উপায়