সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

English Version

গর্ভাবস্থায় স্বাস্থ্যকরভাবে ওজন বাড়াতে ৬ পরামর্শ

No icon হেলথ টিপস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ১১ জুন’ ১৯: গর্ভাবস্থায় ওজন বাড়া মন্দ নয়। সাধারণত গর্ভাবস্থায় ১০ থেকে ১২ কেজি ওজন বাড়াতে বলা হয়। তবে খুব বেশি ওজন বাড়লে কিন্তু জেসটেশনাল ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, প্রি অ্যাকলামসিয়ার মতো জটিলতা তৈরি হতে পারে। তাই গর্ভাবস্থায় ওজন যেন প্রয়োজনের তুলনায় বেশি বা কম না হয় সেজন্য কিছু পরামর্শ মেনে চলা জরুরি। গর্ভাবস্থায় স্বাস্থ্যকরভাবে ওজন বাড়ার পরামর্শ জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমেডি।

১. গর্ভাবস্থার আগে ওজন কমান

গর্ভাবস্থায় স্বাস্থ্যকরভাবে ওজন বাড়াতে চাইলে গর্ভাবস্থার আগে ওজন কমিয়ে নিন। সন্তান নেওয়ার পরিকল্পনা করলে গর্ভাবস্থার আগেই চিকিৎসকের কাছে যান। চিকিৎসক আপনাকে বলে দেবে আপনার কতটুকু ওজন কমানো লাগবে।

২. পুষ্টিবিদের পরামর্শ নিন

গর্ভাবস্থায় স্বাস্থ্যকরভাবে ওজন বাড়াতে একজন পুষ্টিবিদের পরামর্শ নিয়ে নেওয়া ভালো। তিনি আপনাকে জানিয়ে দেবেন গর্ভাবস্থায় আপনার কতটুকু ওজন বাড়াতে হবে এবং এ জন্য খাদ্যতালিকা কেমন হবে।

৩. দুজনের জন্য খাবেন না

গর্ভাবস্থায় বেশি খাওয়া বেশ প্রচলিত। অনেকেই বলেন, এ সময় একজন নয়, দুজনের জন্য খেতে হবে। তবে আপনার শরীর কিন্তু অনেক বেশি ক্যালরি চায় না। দ্বিতীয় ট্রাইমেস্টারে  ( দ্বিতীয় তিন মাস) শরীরে দরকার বাড়তি ৩৪০ ক্যালরি এবং শেষের তৃতীয় ট্রাইমেস্টারে ( শেষের তিন মাস) দরকার বাড়তি ৪৫০ ক্যালরি। এটুকুতেই কিন্তু চলে। এটি আপনি পেতে পারেন প্রতিদিন দুই গ্লাস দুধ  এবং  দৈনিক খাবারের পাশাপাশি বাড়তি ১০০ ক্যালরি ভূসি বা ভূসি সমেত খাদ্য থেকে।

৪. পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান

স্বাস্থ্যকর গর্ভাবস্থার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করা জরুরি। গর্ভাবস্থায় প্রতিদিন আট থেকে ১০ গ্লাস পানি পান করুন। এ সময় সফট ড্রিংকস, চা-কফি, কোলা এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। এগুলো পানিশূন্যতা বাড়িয়ে দেবে । এ সময় পানি সমৃদ্ধ ফল ও সবজি যেমন, তরমুজ, শসা ইত্যাদি খান।

৫. পর্যাপ্ত ঘুম

পর্যাপ্ত ঘুম ও শিথিল থাকা স্বাস্থ্যকর গর্ভাবস্থার জন্য জরুরি। ঘুম ভালোভাবে না হলে ক্ষুধার হরমোনের ওপর প্রভাব ফেলে। এতে খাবারের চাহিদা বাড়ে এবং স্বাস্থ্যকরভাবে ওজন বাড়ার বিষয়টি বাধাগ্রস্ত হয়। তাই পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমান।

৬. হালকা ব্যায়াম

গর্ভাবস্থায় ব্যায়াম জরুরি। মধ্যমমানের ব্যায়াম অতিরিক্ত ক্যালরি ঝড়াতে সাহায্য করবে। সপ্তাহে তিন দিন হালকা ব্যায়াম শরীরকে ফিট রাখে। এ ক্ষেত্রে হাঁটতে পারেন বা সাঁতার কাটতে পারেন।

সর্বাধিক পঠিত খবর

আঁচিল দূর করবেন যেভাবে

সন্তান উৎপাদনের ক্ষমতা কমে যেসব কাজে


জেনে নিন হাঁটার ৫ উপকারিতা

মুখে ঘা, হতে পারে ক্যান্সারের লক্ষণ