বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯

English Version

শিশুর দৈহিক বৃদ্ধিতে চুন

No icon হেলথ টিপস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ৩১ অক্টোবর ২০১৯:  শিশুর দৈহিক উচ্চতা বৃদ্ধিতে চুনের (পানের সাথে যে চুন খাওয়া হয়) ভালো ভূমিকা রয়েছে। কেননা চুনে থাকা ক্যালসিয়াম হাড় গঠনে সহায়ক। মটরদানার সমপরিমাণ চুন দই বা ডালের সাথে মিশিয়ে শিশুকে (বয়স সাত-আট বছরের পর থেকে) খাওয়ালে তার দৈহিক উচ্চতা বৃদ্ধি পেতে সহায়ক হয়। এ ছাড়া চুন শিশুর মস্তিষ্ককেও শক্তিশালী করে। চুনের আরো অনেক উপকারী দিক রয়েছে। যেমন- অন্তঃসত্ত্বা নারীর শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি পূরণে বিভিন্ন তরল খাবারের সাথে একটুখানি চুন মিশিয়ে তাকে খাওয়ানো যায়। কাঁধ ও হাঁটুর ব্যথাও চুন সেবনে ভালো হয়।

এছাড়া হাড়ের সমস্যা, স্পন্ডিলাইসিসের মতো মারাত্মক রোগ (যে কারণে মেরুদণ্ডের চাকতি সরে যায় এবং ব্যথা হয়) চুনের ব্যবহারে কিছুটা ঠিক হতে পারে! ভেঙে যাওয়া হাড় দ্রুত জোড়া লাগাতেও চুন সহায়ক ভূমিকা পালন করে। হাড় ভাঙলে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে মটরদানা পরিমাণ চুন এক গ্লাস পানিতে গুলিয়ে সেবন করতে হয়। এতে হাড় দ্রুত জোড়া লাগে। জন্ডিসের জন্য সবচেয়ে ভালো পথ্য হলো চুন। আখের রসের সাথে মটরদানার সমপরিমাণ চুন গুলিয়ে দিনে দু-তিনবার পান করলে দ্রুত আরোগ্য লাভ করা যায়। মুখে ঘা হলে চুন মিশানো পানি দিয়ে কুলকুচি করলে ঘা দ্রুত নিরাময় হয়।

সর্বাধিক পঠিত খবর

গাড়িতে চড়লে বমি ভাব জেনে নিন সমাধান


লিভারকে পরিষ্কার রাখে যে ৩টি খাবার


লিভার পরিষ্কার রাখে ৩টি খাবার




হঠাৎ বিকট শব্দ, ঝরে গেল সাত শিশুর প্রাণ