সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০১৭

English Version

লিভার ক্যান্সার হবার জন্য এই খাবারই যথেষ্ট!

No icon হেলথ টিপস

স্বাস্থ্য ডেস্ক: ০৪ জুলাই ২০১৭: খাবারটির নাম কোই প্লা। কাঁচা মাছের কিমার সাথে বিভিন্ন মশলা, পাতা এবং লেবুর রস মিশিয়ে তৈরি করা হয় ভর্তার মতো এই খাবারটি। থাইল্যান্ডের দরিদ্র এলাকা, ইসানে এই খাবারটি বেশি জনপ্রিয়। মিলিয়নেরও বেশি মানুষের মাঝে এই খাবারটি জনপ্রিয়।

এই খাবারটি বিপজ্জনক হবার পেছনে দায়ী মাছ নয়, বরং এসব মাছের ভেতরে থাকা কিছু পরজীবী কৃমি। এই খাবারটায় এই কৃমি এত বেশি থাকে যে ইসান এলাকায় লিভার ক্যান্সারের প্রবণতা অস্বাভাবিক রকমের বেশি। এই ক্যান্সার হলে তাতে বাঁচার সম্ভাবনাও খুব কম। এই খাবারটি এত ক্ষতিকর, যে এই এলাকায় যত ক্যান্সার ধরা পড়ে তার মাঝে ৫০ শতাংশই হলো লিভার ক্যান্সার। বছরে বিশ হাজারের মতো মানুষ মারা যায় এই খাবারটি খেয়ে।

নারং খুনতিকেও নামের এক ডাক্তারের পিতামাতা উভয়েই মারা যান এক ধরণের লিভার ক্যান্সার- বাইল ডাক্ট ক্যান্সারে (যার আরেক নাম কোলানজিওকার্সিনোমা)। এরপর তিনি লিভার সার্জন পেশা বেছে নেন। এখন তিনি কোই প্লা এর বিপদের ব্যাপারে মানুষকে সচেতন করতে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তার সাথে একদল ডাক্তার, গবেষক এবং বিজ্ঞানী ইসান এলাকার গ্রামবাসীদের মাঝে আলট্রাসাউন্ড মেশিন এবং ইউরিন টেস্টের মাধ্যমে এই রোগ শনাক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এই খাবার তৈরির মাছ আসে মেকং নদী থেকে, যেখানে ক্ষতিকর কৃমিটি বেশি পরিমাণে আছে। কাঁচা খাওয়া হয় বলে এই মাছ থেকে কৃমি চলে যায় মানুষের পেটে। একটা সময় কৃমির আধিক্যে লিভার ক্যান্সার দেখা দেয়। বেশিরভাগ মানুষ এই খাবারটি খাওয়ার বিপদের ব্যাপারে জানে না। কারণ এতে আক্রান্ত হয়ে বৃদ্ধ মানুষ বেশি মারা যায় এবং তাদের তেমন কোনো চিকিৎসা হয় না। এই রোগ শনাক্ত করার পরীক্ষা করতেও সে এলাকার মানুষে অনীহা দেখা যায়। খাবারটি বিপজ্জনক হলেও তা ওই এলাকার ঐতিহ্যবাহী একটি পদ এবং অনেক বছর ধরে তা প্রচলিত। নিরাপত্তার জন্য এই খাবারটি তৈরির আগে মাছ ভেজে নিতে বলা হলেও তারা তা শুনতে রাজি না, কারণ তাতে এর স্বাদ পালটে যায়। সূত্র: আইএফএল সায়েন্স

সর্বাধিক পঠিত খবর


নাকের পলিপ হওয়ার কারণ ও চিকিৎসা


বাসি রুটির এতো গুণ ?

কতটুকু ভাত খেলে মোটা হবেন না?




শীতে দই খাওয়ার উপকারিতা

গ্যাস সমস্যায় যেসব খাওয়া নিষেধ